মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৩
 মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৩

 মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৩

মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান পড়তে আসে সম্মানিত পাঠিকা বৃন্দ আশা করি আল্লাহর রহমতে ভালই আছেন। আপনি যদি মেট্রোরেল সম্পর্কে জানতে চান তাহলে সঠিক জায়গায় এসেছেন। কারণ আজকে আমরা মেট্রোরেল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করব। এছাড়া এখানে নেটের সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান,  মেট্রোরেল সম্পর্কে এমসিকিউ, মেট্রোরেল সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর এবং মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান পিডিএফ আকারে পেয়ে যাবেন।

মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান ২০২৩ | Sadharon gan

বাংলাদেশের প্রতিটি সরকারি বেসরকারি বিভিন্ন চাকরির পরীক্ষায় মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান প্রশ্ন এসেই থাকে। যেকোনো সরকারি বেসরকারি চাকরির পরীক্ষায় মেট্রোরেল থেকে এক নম্বর কমন পাবে যদি নিচের প্রশ্নগুলো পড়ে থাকেন। কারণ আজকে আমরা মেট্রোরেল সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নগুলো আপনাদের মাঝে তুলে ধরেছি।

১। মেট্রোরেল পথের দৈর্ঘ্য কত  উত্তরঃ ২০.১ কিলোমিটার।

২। মেট্রো রেলের স্টেশনের সংখ্যা কত  উত্তরঃ ১৬টি।

৩। মেট্রোরেলের স্প্যানের সংখ্যা কতটি  উত্তরঃ ৭৭০ টি।

৪। মেট্রোরেলের শুরুর স্থানের নাম কি  উত্তরঃ  উত্তরা।

৫। মেট্রোরেলের শেষ স্থানের নাম কি  উত্তরঃ  মতিঝিল।

৬। মেট্রোরেলের গতিসমা প্রতি ঘন্টায় কত  উত্তরঃ  ১১০ কিলোমিটার।

৭। মেট্রোরেল প্রকল্পে কাজ পুরোপুরি শেষ হবে  উত্তরঃ  ২০২৪ সালে।

৮। মেট্রোরেল প্রকল্প শুরু হয়েছে  উত্তরঃ  ২৬ জন ২০১৬ সালে।

৯। মেট্রোরেল প্রকল্প নির্মাণ উদ্বোধন করেন  উত্তরঃ  মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক।

১০। মেট্রোরেল প্রকল্পের অফিসিয়াল নাম হচ্ছে  উত্তরঃ  ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি উত্তরঃ ৬।

১১। মেট্রল কা প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে কে  উত্তরঃ ঢাকা ম্যাস র‍্যাপিড কোম্পানি লিমিটেড।

১২। মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়নে সহায়তা করেছে কোন দেশ  উত্তরঃ  জাপানের দাতা সংস্থার জায়কা।

১৩। মেট্রোরেলের মূল ডিপো কোথায়  উত্তরঃ উত্তরায়

১৪। জনসাধারণের পরিবহনের জন্য মেট্রোরেল আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয় কত তারিখে  উত্তরঃ  ২৮ ডিসেম্বর ২০২২। উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত।

মেট্রোরেল সম্পর্কে প্রশ্ন ও উত্তর

১৫। মেট্রোরেল কী?

মেট্রোরেল হল একটি শহরের মধ্যে দ্রুত ও নির্ভরযোগ্যভাবে যাতায়াতের জন্য একটি দ্রুতগতির ট্রেন ব্যবস্থা। এটি সাধারণত ভূগর্ভস্থ বা ভূপৃষ্ঠের উপরে নির্মিত হয় এবং এতে ট্রেনগুলি ঘন ঘন চলাচল করে। মেট্রোরেলগুলি পরিবেশবান্ধব, যানজট কমায় এবং মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত করে।

১৬। মেট্রোরেলের ইতিহাস কী?

মেট্রোরেলগুলির ইতিহাস 19 শতকের দিকে শুরু হয়। প্রথম মেট্রোরেলটি 1863 সালে লন্ডনে চালু হয়। এরপর, অন্যান্য শহরগুলিতেও মেট্রোরেলগুলি নির্মিত হতে থাকে। আজ, বিশ্বের অনেক শহরে মেট্রোরেলগুলি চালু রয়েছে।

১৭। মেট্রোরেল কীভাবে কাজ করে?

মেট্রোরেলগুলি সাধারণত ভূগর্ভস্থ বা ভূপৃষ্ঠের উপরে নির্মিত হয়। ট্রেনগুলি একটি নির্দিষ্ট ট্র্যাকের উপরে চলাচল করে। মেট্রোরেলগুলিতে সাধারণত ইলেকট্রিক ট্রেনগুলি ব্যবহার করা হয়। ট্রেনগুলিকে চালানোর জন্য বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয় একটি উচ্চ ভোল্টেজের লাইন থেকে।

১৮। মেট্রোরেল কীভাবে পরিবেশকে রক্ষা করে?

১৯। মেট্রোরেলগুলি পরিবেশবান্ধব কারণ এগুলিতে জ্বালানি হিসাবে তেল বা গ্যাস ব্যবহার করা হয় না। মেট্রোরেলগুলিতে ইলেকট্রিক ট্রেনগুলি ব্যবহার করা হয়, যা পরিবেশ দূষণ করে না। এছাড়াও, মেট্রোরেলগুলি যানজট কমায়, যা পরিবেশ দূষণের অন্যতম কারণ।

২০। মেট্রোরেল কীভাবে যানজট কমায়?

মেট্রোরেলগুলি যানজট কমায় কারণ এগুলিতে প্রচুর সংখ্যক মানুষ একসাথে চলাচল করতে পারে। মেট্রোরেলগুলিতে ট্রেনগুলি ঘন ঘন চলাচল করে, যা যানজট কমাতে সাহায্য করে। এছাড়াও, মেট্রোরেলগুলি মানুষকে দ্রুত ও নির্ভরযোগ্যভাবে গন্তব্যে পৌঁছে দেয়, যা মানুষকে গাড়ি ব্যবহার করতে বাধা দেয়।

২১। মেট্রোরেল কীভাবে মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত করে?

মেট্রোরেলগুলি মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত করে কারণ এগুলিতে মানুষ দ্রুত ও নির্ভরযোগ্যভাবে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারে। এছাড়াও, মেট্রোরেলগুলি যানজট কমায়, যা মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত করে। মেট্রোরেলগুলি পরিবেশবান্ধব, যা মানুষের স্বাস্থ্যের জন্যও ভাল।

২২। মেট্রোরেল কীভাবে অর্থনীতিতে অবদান রাখে?

মেট্রোরেলগুলি অর্থনীতিতে অবদান রাখে কারণ এগুলিতে মানুষ দ্রুত ও নির্ভরযোগ্যভাবে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারে। এতে মানুষের সময় ও অর্থ বাঁচে, যা তারা অন্য কাজে ব্যবহার করতে পারে। এছাড়াও, মেট্রোরেলগুলি যানজট কমায়, যা ব্যবসা-বাণিজ্যকে উৎসাহিত করে।

২৩। প্রশ্ন: ঢাকা মেট্রোরেলের ব্যবস্থাকে কী বলা হয়?

উত্তর: ঢাকা মেট্রোরেল হল একটি ম্যাস র‍্যাপিড ট্রানজিট ব্যবস্থা। ম্যাস র‍্যাপিড ট্রানজিট হল একটি দ্রুতগতির পাবলিক ট্রান্সপোর্ট ব্যবস্থা যা একটি নির্দিষ্ট ট্র্যাকের উপরে চলাচল করে। ম্যাস র‍্যাপিড ট্রানজিটগুলি সাধারণত ভূগর্ভস্থ বা ভূপৃষ্ঠের উপরে নির্মিত হয় এবং এগুলিতে ট্রেনগুলি ঘন ঘন চলাচল করে। ম্যাস র‍্যাপিড ট্রানজিটগুলি পরিবেশবান্ধব, যানজট কমায় এবং মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত করে।

২৪। প্রশ্ন: মেট্রোরেলের পরিচালনা ব্যবস্থার নাম কী ?

উত্তর: মেট্রোরেলের পরিচালনা ব্যবস্থার নাম হল কমিউনিকেশন বেজড ট্রেন কন্ট্রোল সিস্টেম। কমিউনিকেশন বেজড ট্রেন কন্ট্রোল সিস্টেম হল একটি ট্রেন কন্ট্রোল সিস্টেম যা ট্রেনগুলিকে ইলেকট্রনিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করে। কমিউনিকেশন বেজড ট্রেন কন্ট্রোল সিস্টেমগুলি ট্রেনগুলিকে আরও নির্ভরযোগ্য এবং নিরাপদ করে তোলে।

মেট্রোরেল সম্পর্কে প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৩

 মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৩

২৫। প্রশ্ন: ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজ উদ্বোধন করা হয় কবে?

উত্তর: ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজ উদ্বোধন করা হয় ২৬ জুন ২০১৬ সালে।

২৬। প্রশ্ন: প্রথম দফায় ঢাকা মেট্রোরেল বা এমআরটি-৬ লাইনের দৈর্ঘ্য কত ছিল?

উত্তর: প্রথম দফায় ঢাকা মেট্রোরেল বা এমআরটি-৬ লাইনের দৈর্ঘ্য ছিল ২০ দশমিক ১০ কিলোমিটার।

২৭। প্রশ্ন: ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠানের নাম কী?

উত্তর: ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠানের নাম হল ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড।

২৮। প্রশ্ন: ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্পের পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের নাম কী?

উত্তর: ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্পের পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের নাম হল দিল্লি মেট্রোরেল করপোরেশন।

২৯। প্রশ্ন: ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্পের বর্তমান দৈর্ঘ্য কত?

উত্তর: ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্পের বর্তমান দৈর্ঘ্য হল ২১ দশমিক ২৬ কিলোমিটার।

মেট্রোরেল সম্পর্কে প্রশ্ন ও উত্তর

৩০। প্রশ্ন: মেট্রোরেলের স্টেশনসংখ্যা প্রথমে কত ছিল?

উত্তর: মেট্রোরেলের স্টেশনসংখ্যা প্রথমে ছিল ১৬।

৩১। প্রশ্ন: সংশোধিত প্রকল্পে বর্তমানে স্টেশনসংখ্যা হবে কত?

উত্তর: সংশোধিত প্রকল্পে বর্তমানে স্টেশনসংখ্যা হবে ১৭।

৩২। প্রশ্ন: মেট্রোরেল প্রকল্পের সংশোধিত ডিপিপি অনুমোদিত হয় কবে?

উত্তর: মেট্রোরেল প্রকল্পের সংশোধিত ডিপিপি অনুমোদিত হয় ১৯ জুলাই ২০২২ সালে।

৩৩। প্রশ্ন: সংশোধিত প্রকল্পে বর্তমান মেট্রোরেল হবে—

উত্তর: সংশোধিত প্রকল্পে বর্তমান মেট্রোরেল হবে উত্তরা থেকে কমলাপুর স্টেশন পর্যন্ত।

৩৪। প্রশ্ন: মেট্রোরেল প্রকল্প প্রথমে ছিল—

উত্তর: মেট্রোরেল প্রকল্প প্রথমে ছিল উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত।

৩৫। প্রশ্ন: মেট্রোরেল প্রকল্পের নতুন করে দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি পেয়েছে কত কিলোমিটার?

উত্তর: মেট্রোরেল প্রকল্পের নতুন করে দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি পেয়েছে ১ দশমিক ১৬ কিলোমিটার।

৩৬। প্রশ্ন: মেট্রোরেল প্রকল্পে অর্থায়ন করছে কোন প্রতিষ্ঠান?

উত্তর: মেট্রোরেল প্রকল্পে অর্থায়ন করছে জাইকা (৭৫%)

মেট্রোরেলের ভাড়ার তালিকা

মেট্রোরেলের ভাড়ার তালিকা জানা দরকার কারন প্রায় আমরা ঢাকায় এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় যেতে হয়। তাই মেট্রোরেল এর ভাড়ার পরিমান জানা না থাকলে পড়তে হবে বিপাকে। তাই নিম্নে থেকে মেট্রোরেল এর ভাড়ার কত দেখে নেই।

 মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৩

আগারগাও থেকে মতিঝিল মেট্রোরেল চলাচলের সময়সূচি

মেট্রোরেল দিয়ে চলাচল করতে চাইলে অবশ্যই সময় দেখে বাসা থেকে বের হতে হবে। কারন মেট্রোরেল সপ্তাহে ২ দিন বন্ধ থাকে। এবং মেট্রোরেল সকাল ৮টায় স্টার্ট করে থাকে এবং রাত ১০ টা পর্যন্ত চলাচল করে থাকে। তাই আমার মতে বাড়ি থেকে বের হওয়ার আগে সময় নিয়ে বের হতে হবে। কারন মেট্রোরেল এ প্রবেশ করতে হলে টিকিট কেটে প্রবেশ করতে হবে।

 মেট্রোরেল সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান প্রশ্ন ও উত্তর ২০২৩

মেট্রোরেলের নতুন সময়সূচি

রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার:

  • সকাল 8:00 থেকে সকাল 11:00: দ্রুত সময় (পিক আওয়ার), ট্রেনগুলি প্রতি 10 মিনিটে চলাচল করে
  • সকাল 11:01 থেকে বিকাল 4:00: কম দ্রুত সময় (অফ-পিক আওয়ার), ট্রেনগুলি প্রতি 12 মিনিটে চলাচল করে
  • বিকাল 4:01 থেকে রাত 8:00: দ্রুত সময় (পিক আওয়ার), ট্রেনগুলি প্রতি 10 মিনিটে চলাচল করে

শনিবার:

  • সকাল 8:00 থেকে সকাল 11:00: কম দ্রুত সময় (অফ-পিক আওয়ার), ট্রেনগুলি প্রতি 12 মিনিটে চলাচল করে
  • সকাল 11:01 থেকে রাত 8:00: দ্রুত সময় (পিক আওয়ার), ট্রেনগুলি প্রতি 10 মিনিটে চলাচল করে

অতিরিক্ত ট্রেন:

শনিবার থেকে বৃহস্পতিবার রাত 8:15 এবং রাত 8:30 মিনিটে, আগারগাঁও থেকে উত্তরা উত্তর পর্যন্ত প্রতিটি স্টেশনে থামে এমন দুটি অতিরিক্ত ট্রেন চলাচল করে। এই ট্রেনগুলিতে শুধুমাত্র MRT পাস/দ্রুত পাসধারী যাত্রীরা চলাচল করতে পারে।

 মেট্রোরেল সম্পর্কে ১৫ টি বাক্য

  1. মেট্রোরেল হল একটি দ্রুতগতির পাবলিক ট্রান্সপোর্ট ব্যবস্থা যা শহরের বিভিন্ন অংশকে সংযুক্ত করে।
  2. মেট্রোরেলগুলি সাধারণত ভূগর্ভস্থ বা ভূপৃষ্ঠের উপরে নির্মিত হয়।
  3. মেট্রোরেলগুলিতে ট্রেনগুলি ঘন ঘন চলাচল করে, যা যানজট কমাতে সাহায্য করে।
  4. মেট্রোরেলগুলি পরিবেশবান্ধব, কারণ এগুলিতে জ্বালানি হিসাবে তেল বা গ্যাস ব্যবহার করা হয় না।
  5. মেট্রোরেলগুলি মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত করে, কারণ এগুলিতে মানুষ দ্রুত ও নির্ভরযোগ্যভাবে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারে।
  6. মেট্রোরেলগুলি ব্যবসা-বাণিজ্যকে উৎসাহিত করে, কারণ এগুলিতে মানুষ সহজেই তাদের কর্মস্থলে যেতে পারে।
  7. মেট্রোরেলগুলি পর্যটনকে আকর্ষণ করে, কারণ এগুলিতে মানুষ শহরের বিভিন্ন অংশ ঘুরে দেখতে পারে।
  8. মেট্রোরেলগুলি শহরের পরিবেশকে সুন্দর করে তোলে, কারণ এগুলিতে গাড়ির সংখ্যা কমে যায়।
  9. মেট্রোরেলগুলি শহরের শব্দদূষণ কমায়, কারণ এগুলিতে গাড়ির শব্দ কম হয়।
  10. মেট্রোরেলগুলি শহরের বায়ু দূষণ কমায়, কারণ এগুলিতে গাড়ির ধোঁয়া কম হয়।
  11. মেট্রোরেলগুলি শহরের যানজট কমায়, যা শহরের বাসিন্দাদের জীবনকে আরও সহজ করে তোলে।
  12. মেট্রোরেলগুলি শহরের অর্থনীতিকে চাঙা করে তোলে, কারণ এগুলিতে ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধি পায়।
  13. মেট্রোরেলগুলি শহরের পরিবেশকে রক্ষা করে, কারণ এগুলিতে পরিবেশবান্ধব যানবাহন ব্যবহার করা হয়।
  14. মেট্রোরেল ব্যবহার করে উত্তরা থেকে মতিঝিল যেতে সময় লাগবে মাত্র ৩৫ মিনিট।
  15. প্রাথমিক স্তরে মেট্রো রেলের মোট স্টেশনের সংখ্যা ১৬ টি।
  16. মেট্রোরেল প্রকল্পে প্রথম স্তরে সর্বমোট ২৪ টি ট্রেন থাকবে।
  17. মেট্রোরেল প্রকল্পের সর্বমোট বাজেট ২.৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।
  18.  ঢাকা মেট্রো রেলের দৈর্ঘ্য ২১.২৬ কিমি (নির্মাণাধীন) ১২৮.৭৪১ (পরিকল্পিত)।

মেট্রোরেল সম্পর্কে ১৫ টি বাক্য

সম্মানিত পাঠক আশা করি নিম্নের মেট্রোরেল সম্পর্কে ১৫টি বাক্য আপনাদের বাস্তব জীবনে কাজে দিবে। বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি চাকরির পরিক্ষায় মেট্রোরেল সম্পর্কে প্রশ্ন এসেই থাকে। তাই নিম্নের বাক্য গুলো শিখে রাখুন।

১। Metro is a rapid transit system that connects different parts of a city.

২। Metros are usually built underground or on the surface.

৩। Metros have trains that run frequently, which helps to reduce traffic congestion.

৪। Metros are environmentally friendly, as they do not use oil or gas as fuel.

৫। Metros improve the quality of life for people, as they allow people to travel quickly and reliably to their destinations.

৬। Metros encourage business and trade, as they allow people to easily commute to work.

৭। Metros attract tourism, as they allow people to explore different parts of a city.

৮। Metros make cities more beautiful, as they reduce the number of cars on the roads.

৯। Metros reduce noise pollution, as they have fewer cars on the roads.

১০। Metros reduce air pollution, as they have fewer cars on the roads.

১১। Metros reduce traffic congestion, which makes life easier for city residents.

মেট্রোরেল টপিকে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ। আশা করি আজকের টপিক থেকে নতুন কিছু শিখতে পেড়েছেন। আজকের আর্টিকেল পড়ে কেমন লাগলো তা অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবে। কারন আপনার একটি কমেন্ট আমাকে আর্টিকেল লিখতে উৎসাহিত করবে। ধন্যবাদ সবাইকে।

আরও পড়ুন

পদ্মা সেতু সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান A to Z

মেট্রোরেল সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন-উত্তর | Metro Rail Related General Question

Check Also

পদ্মা সেতু সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান

পদ্মা সেতু সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান A to Z

সাধারণ জ্ঞান বিষয়ে জানতে আসা সম্মানিত পাঠক পাটিকে বৃন্দ আশা করি সবাই ভাল আছেন। আজকে …

স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যা বললেন

স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যা বললেন

স্মার্ট বাংলাদেশ করতে হলে সর্বপ্রথম আমাদেরকেই স্মার্ট হতে হবে। কারন আমরা স্মার্ট না হলে আমাদের …

১৫ আগস্ট সম্পর্কে রচনা | জাতীয় শোক দিবস রচনা

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস হিসেবে পরিচিত

১৯৭৫ সাল থেকে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস হিসাবে পালিত হয়। এই জাতীয় শোক দিবস …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *