চলতি সপ্তাহে চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তির শিক্ষক নিয়োগে চূড়ান্ত সুপারিশ (1)
চলতি সপ্তাহে চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তির শিক্ষক নিয়োগে চূড়ান্ত সুপারিশ (1)

চলতি সপ্তাহে ৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তির শিক্ষক নিয়োগে চূড়ান্ত সুপারিশ

চলতি সপ্তাহে ৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তির শিক্ষক নিয়োগে চূড়ান্ত সুপারিশঃ সম্মানিত পাঠক আপনারা অনেকেই এনটিআরসিএ আপনি নিয়োগের ৪র্থ গণ বিজ্ঞপ্তি জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন। যারা মূলত ৪র্থ গণবিজ্ঞতীর অপেক্ষা করছেন তাদের জন্য সুখবর। কারণ করা হবে এনটিআরসিএ শিক্ষক নিয়োগ এর চতুর্থ গণ বিজ্ঞপ্তি। এবার চতুর্থ গণ বিজ্ঞপ্তিতে মোট ২৮ হাজার প্রার্থী অর্থাৎ ২৮ হাজার শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে এনটিআরসিএ কর্তৃপক্ষ। নিম্নে আরো বিস্তারিত দেখুন…

অবশেষে এনটিআরসিএ ৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তি সম্পর্কে আন্টি আর চেয়ে কর্মকর্তাকে প্রশ্ন করলে তারা বলেন, শিক্ষক নিয়োগের সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে। এখন শুধু প্রকাশের বাকি।

তবে ৪র্থ গণ বিজ্ঞপ্তি আরও আগেই প্রকাশ করা হয় যেত। অনলাইন ভেরিফিকেশন এবং জাল সনদ এবং প্রাথমিক সুপারিশ প্রাপ্ত একজন হিন্দু ধর্মালম্বী প্রার্থী মাদ্রাসার সুপারিশ প্রাপ্ত হওয়ার কারণে রিট করেন। এছাড়া আরো কয়েকটি কারণে এনটিআরসিএ চতুর্থ গণ বিজ্ঞপ্তি জামেলা হয়।

৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তি সম্পর্কে এনটিআরসিএ এর সচিব ওবায়দুর রহমান বলেন, চতুর্থ গণ বিজ্ঞপ্তি চূড়ান্ত ফল প্রকাশের তারিখ প্রায় হয়ে গেছে। গণে বিজ্ঞপ্তি সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে এখন শুধু শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে অনুমতি পেলে আর কোন বাধা থাকবেনা। তবে আশা করা যায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তির বাধা প্রকাশ করবে না। তাই আমরা ৪র্থ গনবিজ্ঞপ্তি প্রকাশের জন্য রবিবার শিক্ষা মন্ত্রণালয় অনুমতি চাইতে যাব।

শিক্ষক ফোরামের সহ-সভাপতি ইমরান খান গণমাধ্যমকে বলেন, এনটিআরসিএ এর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি শিক্ষক হওয়ার বুনছেন হবু শিক্ষককেরা। বর্তমানে প্রায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকের সংখ্যা অনেক কম। ফলে একদিকে কম শিক্ষক থাকায় শব্দের উপর চাপ যাচ্ছে এবং এতে স্টুডেন্টেরা ভালোভাবে পড়ার সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। কারণ কোন প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক ঘাটতি থাকলে সেই প্রতিষ্ঠানে ঝামেলা হওয়া স্বাভাবিক।

অবশেষে এনটিআরসি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আমরা হবু শিক্ষক শিক্ষিকাদের বিভিন্ন কারণে অনেক লেট হয়ে গেছে। তবে এবার আশা করা যায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে অনুমতি পেলেই আমরা ৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করব।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে অনুমতি আনতে যাবে সামনের রবিবার। তবে আমরা আশাবাদী শিক্ষা মন্ত্রণালয় চতুর্থ গণ বিজ্ঞপ্তি বাধা দিবে না। ফলে বলা যাচ্ছে যে চলতি সপ্তাহে ৪র্থ গণবিজ্ঞতাই প্রকাশ হবে।

চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তির এনটিআরসিএ শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

১৬তম নিবন্ধনধারীরা এনটিআরসিএ শিক্ষক নিয়োগের সবচেয়ে বঞ্চিতরা। ২০১৯ সালের ২৩ মে নিবন্ধনের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর তারা চার বছর ধরে নিয়োগ কার্যক্রমে জড়িত রয়েছেন। প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ৩০ আগস্ট ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত হয় এবং ফল ৩০ সেপ্টেম্বর প্রকাশ করা হয়। লিখিত পরীক্ষা ১৫ ও ১৬ নভেম্বর ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত হয় এবং ফল ১১ নভেম্বর ২০২০ সালে প্রকাশ করা হয়। মৌখিক পরীক্ষা ২ ডিসেম্বর ২০২০ থেকে শুরু হয় এবং ফল ১৭ অক্টোবর ২০২১ সালে প্রকাশ করা হয়।

Hsc exam 2023 | ১৭ আগস্ট এইচএসসি বাংলা ১ম পত্র পরীক্ষা ২০২৩

অন্যদিকে, এনটিআরসিএ ২০২২ সালের ডিসেম্বরে চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। ১২ মার্চ ২০২৩ সালে ৩২,৪৩৮ জন প্রার্থীকে প্রাথমিকভাবে সুপারিশ করা হয়। ধাপে ধাপে এসব প্রার্থীর অনলাইনে পুলিশ ভেরিফিকেশন শেষে চূড়ান্ত সুপারিশের যোগ্য ২৮,০০০ প্রার্থী নির্বাচন করে এনটিআরসিএ।

১৬তম নিবন্ধনধারীরা চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তিতে সুপারিশের জন্য অপেক্ষা করছেন। তারা আশা করছেন যে এনটিআরসিএ তাদের দ্রুত সুপারিশ করবে যাতে তারা তাদের পেশাগত জীবন শুরু করতে পারে।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *